রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৪:৩৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সংসদ সদস্যের মানবিক উদ্যোগ: বাবার কষ্ট দেখে অসহায়দের কষ্ট দূর করতে হুইল চেয়ার বিতরণ দরিদ্রদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবায় সূর্যেরহাসি-র ‘ফ্রি হেলথ ক্যাম্প’ চাচা শ্বশুরের হাতে গৃহবধু খুন, পুকুরে ঝাপ দিয়ে প্রাণ রক্ষা স্বামীর কৃষক হত্যা মামলায় নারীসহ ৩ আসামির যাবজ্জীবন ময়মনসিংহে সাপের কামড়ে গৃহবধুর মৃত্যু বাসে উঠতে হিজড়াদের ধাক্কাধাক্কি, পড়ে গিয়ে পিছনের চাকায় পিষ্ট বৃদ্ধ ঈশ্বরগঞ্জকে আধুনিক ও স্মার্ট উপজেলা হিসেবে গড়তে চান রাসেল আমি জনতার চেয়ারম্যান,জনগণের খাদেম হয়েই কাজ করব: প্রদীপ গ্রামে ঢুকে বাড়িঘরে হামলা-ভাঙচুর, ২ জনকে কুপিয়ে হাসপাতালে ঈশ্বরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু পরিষদের নতুন কমিটি: সভাপতি মনিরুল, সম্পাদক আনোয়ার

পাঁচদিন অবরুদ্ধ থাকার পর মুক্ত পেল তিনটি পরিবার

এহসানুল হক, ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ৩০ মে, ২০২৩
  • ৩২৫ বার পড়া হয়েছে

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে রাস্তায় বাঁশের বেড়া দিয়ে এক বাড়ির তিন পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখার অভিযোগের পর ওই পরিবারকে মুক্ত করে দিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহবুবুর রহমান। আজ (৩০মে) মঙ্গলবার বিকেলে অবরুদ্ধ পরিবারকে মুক্ত করে দেন তিনি। এসময় সহযোগিতায় ছিলেন ঈশ্বরগঞ্জ থানার এসআই কামরুল ইসলাম রাসেলের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম।

জানা গেছে, ওই তিন পরিবার গত ৫ দিন ধরে অবরুদ্ধ অবস্থায় মানবেতর জীবনযাপন করছিলেন। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষরা বাড়ি থেকে বের হওয়ার রাস্তায় বাঁশ দিয়ে বেড়া বেঁধে অবরুদ্ধ করে রেখেছিল। যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করায় আশেপাশের আরও পাঁচ বাড়ির ১৪ পরিবার দুর্ভোগ পোহাচ্ছিলেন। ফলে ছয় বাড়ির ১৭ পরিবারের চলাচলে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল বাঁশের বেড়া। এ নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছিল অবরুদ্ধ পরিবার। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) হাফিজা জেসমিন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)মাহবুবুর রহমানকে বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নিতে বলেন। অবরুদ্ধ পরিবারগুলো ছিল উপজেলার পৌর এলাকার কাকনহাটি গ্রামের বাসিন্দা। তারা হলেন ওই গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে মো. বাচ্চু মিয়া(৪৩) ও তাঁর ভাইয়েরা।

মুক্তি পাওয়া পরিবারগুলো জানায়, চার-পাঁচদিন যাতায়াতসহ নানা দুর্ভোগ ও আতঙ্কে ছিলাম ।আমাদের ছেলে মেয়েরা এখন পড়াশোনা করতেও বের হতে পারছিলো না। আজ ইউএনও ও এসিল্যান্ড স্যারের সহযোগিতায় আমরা মুক্তি পেয়েছি।আমরা তাদের ধন্যবাদ জানাই।’

এঘটনায় অভিযুক্তরা হলেন,একই গ্রামের মৃত নূর হোসেন মোঃ ফজলুর রহমান (৬০), মোঃ ফজলুর রহমানের ছেলে মোঃ সোহাগ মিয়া (২৮),মোঃ রহিছ উদ্দিন (৬২), মোঃ আসব আলী (৫৫), মোহাম্মদ আলী (৪৫), মোঃ চাঁন মিয়া (৫৬), মোঃ এখলাছ উদ্দিন (৫০)। এসিল্যান্ড ও ঈশ্বরগঞ্জ থানা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহবুবুর রহমান বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মহোদয়ের নির্দেশনায় একটি লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অবরুদ্ধ তিন পরিবারকে মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। অভিযুক্তদের বাড়িতে পাওয়া যায়নি।’

Please Share This Post in Your Social Media

আরও পড়ুন