সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৬:৪১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঈশ্বরগঞ্জে বোরো ধানের সমলয় প্রদর্শনীর ফসল কর্তন ও মাঠ দিবস পালন ঈশ্বরগঞ্জে ফ্যানের বাতাসে ধান উড়ানোর সময় বিদ্যুৎপৃষ্টে কৃষাণীর মৃত্যু হিট স্ট্রোক আপদ- আ শ মামুন আ.লীগের সংবর্ধনায় সিক্ত ব্যারিষ্টার উম্মি ফারজানা ছাত্তার, দিলেন স্মার্ট ঈশ্বরগঞ্জ বিনির্মানের প্রতিশ্রুতি বাবাদের কাঁধে সন্তানের লাশ, ছেলের মুখ থেকে বাবা ডাক শোনা হলো না শাহ্ আলমের নানা আয়োজনে ঈশ্বরগঞ্জে প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনী মেলা অনুষ্ঠিত ঈশ্বরগঞ্জে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্যের বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ ঈদের নামাজ পড়ে বাড়ি ফেরার পথে যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা ঈশ্বরগঞ্জে সেলাইমেশিনসহ ঈদ উপহার পেল ২৩০ পরিবার এতিম শিশুদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ করলো “জনতার ঈশ্বরগঞ্জ”   

ঈশ্বরগঞ্জে দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি মানববন্ধন

এহসানুল হক, ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
  • আপডেট : রবিবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ৪৬৬ বার পড়া হয়েছে

ঈশ্বরগঞ্জে দুই ইউপি সদস্যকে মারধর করে উচাখিলা ইউনিয়নের আলোচিত চেয়ারম্যান আনোয়ারুল হাসান খান সেলিমের বিরুদ্ধে উপজেলার ১১টি ইউপির সদস্য ও পৌরসভার কাউন্সিলরা মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ কর্মসূচি করেছেন। ইউপি চেয়ারম্যানের বিচার চেয়ে স্মারকলিপিও দেওয়া হয়। অপরদিকে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও অভিযোগ প্রত্যাহারের দাবিতে পাল্টা মানববন্ধন করা হয়েছে।

রোববার দুপুরে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার পরিষদের সামনে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কে পাশে উপজেলার ১১ টি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও পৌর সভার কাউন্সিলরা ওই মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করে।অপরদিকে একইদিনে বিকেলে উচাখিলা ইউনিয়ন পরিষদের সামনে উচাখিলা ইউনিয়ন বাসী ও উচাখিলা ইউপি সদস্যদের ব্যানারে পাল্টা মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উপজেলা পরিষদের সামনে অনুষ্ঠিত ১১ ইউপির সদস্য কর্তৃক আয়োজিত মানববন্ধনে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আসা ইউপি সদস্যরা বলেন, উচাখিলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ারুল হাসান খান সেলিম একজন অত্যাচারী চেয়ারম্যান। সে উপজেলা জাতীয় জাতীয় পার্টি সহ-সভাপতি ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হওয়ায় নিরীহ মানুষের উপর বিভিন্ন ভাবে অন্যায় অবিচার করে যাচ্ছে। যার ফলস্বরূপ গত ২ ফেব্রুয়ারি উচাখিলা ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য রোকসানা আক্তারকে চুলের মুঠি ধরে টানা হেঁছড়া করে এলোপাথারী কিল-ঘুষি ও লাথি সহ তার পায়ের সেন্ডেল দিয়ে জুতাপেটা করে। নারী ইউপি সদস্যের পক্ষ নিয়ে সংবাদ মাধ্যমে কথা বলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি উচাখিলা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন এলাকায় ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. আবুল বাশারকে চেয়ারম্যান পরিকল্পিত ভাবে ডেকে নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করায়।

ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে আনোয়ারুল হাসান খান সেলিমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অন্যায় অবিচারের কথা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, উচাখিলা ইউনিয়নে ইউপি সদস্য রাকিবুল হাসান রাকিব, ঈশ্বরগঞ্জ ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মাসুদ তালুকদার, তারুন্দিয়া ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ নূরুল হক, সরিষা ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আবু সাইদ ফরিদ, সোহাগি ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য নাছিমা আক্তার, আঠারবাড়ি ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য সুফিয়া খাতুন, জাটিয়া ইউনিয়নের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য মোছা: হেলেনা খাতুন, কুলসুম বেগম, তাসলিমা আক্তার প্রমূখ। মানববন্ধনে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দরা অংশ গ্রহণ করেন।

পরে চেয়ারম্যান সেলিম খানকে অবিলম্বে গ্রেফতার, চেয়ারম্যান পদ থেকে বরখাস্ত ও দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

অপরদিকে উচাখিলা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল হাসান খান সেলিমের বিরুদ্ধে মিথ্যা, ষড়যন্ত্রমূলক মামলা, বানোয়াট অভিযোগ প্রত্যাহার ও অপপ্রচারের প্রতিবাদে রোববার বিকেলে উচাখিলা বাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। চেয়ারম্যানকে নির্দোষ দাবি করে অপপ্রচারে জড়িতদের বিচারের দাবি জানানো হয়। মানববন্ধনে বক্তারা আরও জানান, সেলিম খান একজন সৎ ও জনবান্ধব চেয়ারম্যান। সেলিম চেয়ারম্যানের কিছু হলে জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে।

Please Share This Post in Your Social Media

আরও পড়ুন