সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঈশ্বরগঞ্জে বোরো ধানের সমলয় প্রদর্শনীর ফসল কর্তন ও মাঠ দিবস পালন ঈশ্বরগঞ্জে ফ্যানের বাতাসে ধান উড়ানোর সময় বিদ্যুৎপৃষ্টে কৃষাণীর মৃত্যু হিট স্ট্রোক আপদ- আ শ মামুন আ.লীগের সংবর্ধনায় সিক্ত ব্যারিষ্টার উম্মি ফারজানা ছাত্তার, দিলেন স্মার্ট ঈশ্বরগঞ্জ বিনির্মানের প্রতিশ্রুতি বাবাদের কাঁধে সন্তানের লাশ, ছেলের মুখ থেকে বাবা ডাক শোনা হলো না শাহ্ আলমের নানা আয়োজনে ঈশ্বরগঞ্জে প্রাণীসম্পদ প্রদর্শনী মেলা অনুষ্ঠিত ঈশ্বরগঞ্জে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্যের বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ ঈদের নামাজ পড়ে বাড়ি ফেরার পথে যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা ঈশ্বরগঞ্জে সেলাইমেশিনসহ ঈদ উপহার পেল ২৩০ পরিবার এতিম শিশুদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ করলো “জনতার ঈশ্বরগঞ্জ”   

বাবাদের কাঁধে সন্তানের লাশ, ছেলের মুখ থেকে বাবা ডাক শোনা হলো না শাহ্ আলমের

এহসানুল হক, স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২৪
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

এক ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে সুখের সংসার। আট বছর বয়সী মেয়ে শাহনাজ দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে।

পাঁচ মাস বয়সী একমাত্র ছেলে ইয়াছিন। ছেলে-মেয়েকে আদর করতে করতেই বাড়ি থেকে বের হয়ে যান আবু সাঈদ ওরফে শাহ্ আলম। যাওয়ার সময় স্ত্রী ফেরদৌসী আক্তারকে বলে গিয়েছিলেন দুইমাস পর কাজ থেকে ফিরে আসলে একমাত্র ছেলে ইয়াছিনের মুখ থেকে তখন বাবা ডাক শুনতে পাবেন। কিন্তু তা আর হলো না! গত বুধবার রাঙামাটি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলার শিজকছড়া-উদয়পুর সড়কের সাজেকে ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাঁদে পড়ে নিহত ৯ শ্রমিকের একজন হলেন শিশু ইয়াছিনের বাবা। এখানেই শেষ নয়, ভয়াবহ ওই সড়ক দুর্ঘটনায় ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার একই গ্রামের তিনজনসহ ৫ জন শ্রমিক নিহত হয়েছেন। নিহত পাঁচ জনের মধ্যে চারজনের লাশ উঠলো বাবার কাঁধে। অপর একজনের বাবা মৃত। নিহতারা হলেন- উপজেলার তারুন্দিয়া ইউনিয়নের শ্রীপুরজিথর গ্রামের চান মিয়ার ছেলে মো. তফাজ্জল হোসেন(২১),হেলাল উদ্দিনের ছেলে মো. নয়ন মিয়া(২২),নজরুল ইসলামের ছেলে মো. মহন মিয়া(১৭), পার্শ্ববর্তী গিরিধরপুর গ্রামের মো. শহিদুল্লাহ’র ছেলে আবু সাঈদ ওরফে শাহ্ আলম(২৮),বড়হিত ইউনিয়নের মধ্য গ্রামের মৃত রিয়াসত আলীর ছেলে এরশাদুল ইসলাম (আশাদ)।
নিহতদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নিহত পাঁচজন শ্রমিক গত মঙ্গলবার কাজের উদ্দেশ্য তারা বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। পথে সড়ক দুর্ঘটনায় তারা নিহত হন।
মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনায় এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।
নিহত আবু সাঈদ ওরফে শাহ্ আলমের স্ত্রী ফেরদৌসী আক্তার আহাজারি করতে করতে বলেন,’আমার সব শেষ অইয়্যা গেছে গো। বাড়িত থাইক্যা যাওয়ার সময় স্বামী কইয়্যা গেছিন দুই মাস পর আসার আইসা আমার ছেলে ইয়াছিনের মুখ থাইক্যা বাবা ডাক শুনবো গো। ও আল্লাহ গো আমার ছেলে ইয়াছিন এহন কারে বাবা ডাকবো গো। আমার সংসার কেলা চালাইবো গো…!
নিহত মহন মিয়ার বাবা নজরুল ইসলাম আহাজারি করে বলেন,’আমি আর কিছু চাইনা গো,তোমরা আমার ছেলেরে আইন্যা(এনে) দাও গো। সন্তানেরের লাশ কীভাবে আমি কাঁধে লইবাম গো।

তারুন্দিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ রানা বলেন- ‘ সাজেকের দুর্ঘটনায় নিহত ৯ জনের মধ্যে ৫ জনের বাড়িই ঈশ্বরগঞ্জে। তারমধ্যে ৪ জনের বাড়ি আমার ইউনিয়নে। এ ঘটনায় আমি নিজেও খুবই মর্মাহত’।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আরিফুল ইসলাম প্রিন্স বলেন- ‘ খবরটি শুনে আমি অত্যন্ত ব্যথিত হয়েছি। নিহতদের দাফন- কাফনের জন্য ইতোমধ্যে উপজেলা প্রশাসন এবং উপজেলা পরিষদের
পক্ষ থেকে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানদের মাধ্যমে প্রতিটা পরিবারে ৫ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়াও পরবর্তীতে বিধি মোতাবেক নিহতদের পরিবারে সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে’।

Please Share This Post in Your Social Media

আরও পড়ুন