মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:৫৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :

মেট্রোরেলে ভ্রমণের সুযোগ যেন সাধারণ যাত্রীদের কাছে স্বপ্নপূরণের মতো।

অবারিত বাংলা ডেস্ক
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ২১২ বার পড়া হয়েছে

মেট্রোরেলে ভ্রমণের সুযোগ যেন সাধারণ যাত্রীদের কাছে স্বপ্নপূরণের মতো। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সাধারণ যাত্রীদের জন্য মেট্রোরেল উন্মুক্ত করা হয়েছে। প্রথম দিন মেট্রোরেলে ভ্রমণ করতে ভোর থেকে রাজধানীর আগারগাঁও মেট্রো স্টেশনে ছিল মানুষের উপচেপড়া ভিড়। দীর্ঘ সারিতে দাঁড়ানো মানুষের অপেক্ষা যেন কিছুতেই ফুরোচ্ছে না। তারপরও তাদের উচ্ছ্বাস আর আনন্দে ভাটা পড়েনি।

মেট্রোরেলের ভ্রমণ করতে রাজধানীর সেগুনবাগিচা থেকে সকাল সাড়ে সাতটায় আগারগাঁও স্টেশনে এসেছেন সাজ্জাদ হোসেন ও তার তিন বন্ধু। রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তারা। মেট্রোরেলে যাত্রীসেভার প্রথম দিন তারা ভ্রমণ করতে ভোর থেকে লাইনে দাঁড়িয়েছেন। তিন ঘণ্টা পর ভেতরে প্রবেশের সুযোগ পেয়ে তাদের মধ্যে যেন বাঁধভাঙা উল্লাস সৃষ্টি হয়।

সাজ্জাদ হোসেন বলেন, অনেক অপেক্ষার পর স্বপ্নপূরণ হচ্ছে। অনেক দিনের স্বপ্ন আজ পূরণ হতে যাচ্ছে। নিজ দেশে বন্ধুদের নিয়ে মেট্রোরেলে চড়ার স্বপ্ন দীর্ঘদিনের। দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে থাকায় কিছুটা বিরক্তি তৈরি হলেও ভেতরে প্রবেশের পর তা নিমেষে আনন্দে পরিণত হয়েছে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ১০ মিনিট পর পর ৪০ জন করে স্টেশনের ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে। দীর্ঘসময় লাইনে অপেক্ষমান ভ্রমণপিপাসুরা ভেতরে প্রবেশ করেই উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছেন। সেখানে শিশুসহ প্রায় সব বয়সী মানুষের উপস্থিতি চোখে পড়েছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যাত্রীদের সারিও দীর্ঘ হচ্ছে। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে মেট্রোরেলে ভ্রমণ করতে আসছেন অনেকে।

মেট্রোরেলে ভ্রমণ করতে পরিবার নিয়ে এলেও দীর্ঘ সময় অপেক্ষার পর টিকিট না পেয়ে অনেককে ফিরে যেতেও দেখা গেছে। কেউ কেউ সেলফি ও লম্বা লাইনের ছবি তুলছেন। সেই ছবি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করছেন।

শুরুতে সীমিত পরিসরে উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত চলবে মেট্রোরেল। বৃহস্পতিবার থেকে মেট্রোরেলে যাত্রী পরিবহন শুরু হয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী বছরের ডিসেম্বর নাগাদ মেট্রোরেলে চড়ে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত যাতায়াত করা যাবে।

এদিন ছোটবোনদের নিয়ে মেট্রোরেলে চড়তে আগারগাঁও স্টেশনে এসেছিলেন ইসমত আরা মিম। কিন্তু যাত্রীদের দীর্ঘ সারি দেখে তারা ফিরে গেছেন। তবে ফিরে যাওয়ার আগে ঘুরে দেখেছেন পুরো মেট্রো স্টেশন।

ফেরার পথে মিম বলেন, বোনদের নিয়ে প্রথম দিন রেলের ভ্রমণ করতে এসেছিলাম। কিন্তু যাত্রীদের যে ভিড় তাতে অনেকক্ষণ অপেক্ষা করা ছাড়া উপায় নেই। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে কদিন পর পরিবারের সবাইকে নিয়ে ভ্রমণ করবো।

শুরুর দিকে মেট্রোরেল চলবে দিনে ৪ ঘণ্টা। সকাল ৮ থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত চলার সময় ট্রেনগুলো মাঝপথে কোথাও যাত্রাবিরতি করবে না।

৩৩ হাজার ৪৭১ কোটি ৯৯ লাখ টাকা ব্যয়ে উত্তরা থেকে কমলাপুর পর্যন্ত ২১ দশমিক ১৬ কিলোমিটার দীর্ঘ এই মেট্রোরেল নির্মাণের কাজ চলছে জাপানের উন্নয়ন সংস্থা জাইকার সহযোগিতায়।

এছাড়া উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে উত্তরা সেন্টার (মধ্য) ও উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনের ভাড়া হবে একই ২০ টাকা। উত্তরা উত্তর থেকে পল্লবী ও মিরপুর-১১ স্টেশনের ভাড়া ৩০ টাকা, মিরপুর-১০ ও কাজীপাড়া স্টেশনের ভাড়া ৪০ টাকা এবং শেওড়াপাড়া স্টেশনের ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৫০ টাকা।

Please Share This Post in Your Social Media

আরও পড়ুন